যেসব নিয়োগ পরীক্ষা আছে সামনে

মোছাব্বের হোসেন:

করোনাভাইরাসের কারণে বেশ কিছু সরকারি নিয়োগ পরীক্ষা পিছিয়ে গেছে। তবে অবস্থা স্বাভাবিক হলে সামনে এসব পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এই পরীক্ষাগুলোর জন্য এই সময়ে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন আরও ভালোভাবে।

পিএসসির পরীক্ষা
করোনাভাইরাসের কারণে বেশ কিছু পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন। পিএসসি সূত্র জানায়, ৪১তম বিসিএস পরীক্ষার প্রিলিমিনারি পরীক্ষা এ বছরের এপ্রিলে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এটি নেওয়া সম্ভব হয়নি। এইচএসসি পরীক্ষার পর সেটি নেওয়ার পরিকল্পনা আছে পিএসসির। এ ছাড়া ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল আটকে আছে করোনার কারণে। পিএসসির পরামর্শ হলো, এই সময়ে ৪০তম বিসিএসের পরীক্ষার্থীরা ভাইভার জন্য আর ৪১তম বিসিএসের প্রার্থীরা প্রিলিমিনারির পাশাপাশি লিখিত পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন।

ব্যাংকের পরীক্ষা
সরকারি চাকরির অন্যতম বড় খাত ব্যাংক। এ খাতের নিয়োগ পরীক্ষাও আটকে আছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক আরিফ হোসেন খান প্রথম আলোকে বলেন, করোনার কারণে জনতা ব্যাংকের একটি নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত আছে। ওই পদের অধিকাংশ প্রার্থীর পরীক্ষা নেওয়া হলেও শেষ করা যায়নি। একই ব্যাংকের আরেকটি প্রিলিমিনারি পরীক্ষা মার্চের শেষ দিকে হওয়ার কথা থাকলেও শেষ সময়ে তা বন্ধ করতে হয়েছে। এই পরীক্ষায় ৬৩৩টি পদের বিপরীতে লক্ষাধিক প্রার্থী আবেদন করেন। অবস্থা স্বাভাবিক হলে সামনে এটি নেওয়া হবে। এই পরীক্ষাসহ আরও যেসব পরীক্ষা আছে, তার জন্য প্রার্থীরা নিয়মিত প্রস্তুতি চালিয়ে যেতে পারেন। এতে পরীক্ষায় ভালো করার সুযোগ তৈরি হবে। পরীক্ষা কবে হবে জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ জানায় অবস্থা কিছুটা ভালো হলে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

খাদ্য অধিদপ্তর ও দুদকের পরীক্ষা
খাদ্য অধিদপ্তরের ১ হাজার ১০০ পদের আবেদনকারী ছিলেন ১৫ লাখ। মার্চ-এপ্রিলে এ পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তা ছিল। এ পরীক্ষাও নিতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষার জন্য ভালো একটি সময়ের অপেক্ষা করছে কর্তৃপক্ষ। একই কারণে দুদকের বিভিন্ন পদের পরীক্ষাও আটকে আছে। তবে কর্তৃপক্ষের পরামর্শ চাকরিপ্রার্থীরা যেন প্রস্তুতি না থামান। করোনা পরিস্থিতি দেখে তাঁরা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেবেন।

ব্যান্সডকের লিখিত পরীক্ষা
বাংলাদেশ ন্যাশনাল সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল ডকুমেন্টেশন সেন্টারের প্রথম শ্রেণির সায়েন্টিফিক অফিসার ও অ্যাকাউন্টস অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষার ২০ মার্চ নির্ধারিত ছিল। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য ঝুঁকি এড়াতে লিখিত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে বলে ব্যান্সডকের ওয়েবসাইটে জানানো হয়। তবে কবে পরীক্ষা নেওয়া যাবে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে প্রতিষ্ঠানটির একজন কর্মকর্তা বলেন, তাঁরা করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। এটি দেখে সিদ্ধান্ত নেবেন।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা
গত ২০ মার্চ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা স্থগিত করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। পরীক্ষা এ বছরের শেষ দিকে হতে পারে বলে তাঁরা জানান।

তুলা উন্নয়ন বোর্ডের পরীক্ষা
তুলা উন্নয়ন বোর্ডের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ১১ ক্যাটাগরির পদে ৭০ জনকে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা ২০ মার্চ ও ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে বিভাগীয় বাছাই বা নির্বাচন কমিটির সভায় সাময়িকভাবে পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ পরীক্ষাও ভালো অবস্থার উপর নির্ভর করছে বলে জানানো হয়।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য পরীক্ষা
সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরে নিরাপত্তা প্রহরী (সিকিউরিটি গার্ড) নিয়োগের স্বাস্থ্য পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। গত ১৮ ও ১৯ মার্চ পদটিতে আবেদনকারীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়েছে। সূত্র: প্রথম আলো

নিউজ গার্ডিয়ান/ এমএ/