‘সিনেমা আর নয়, বাকি জীবনটা আল্লাহর পথে হাঁটতে চাই’

২০১৪ সালে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হয় পুষ্পিতা পপির। সে সময় তিনি বলেছিলেন, ‘আমার সব পরিকল্পনা চলচ্চিত্রকে কেন্দ্র করে। স্বপ্ন দেখি সফল নায়িকা হওয়ার। অভিনয় দিয়ে দর্শকদের মনে আজীবন বেঁচে থাকতে চাই’।

নবাগত নায়িকা পুষ্পিতা পপির কণ্ঠে এই কথাগুলো এখন অতীত। কয়েক বছর ধরে মিডিয়া থেকে আড়ালে আছেন এই অভিনেত্রী। সিনেমায় আর অভিনয় করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। বাকি জীবনটা তিনি ইবাদত বন্দেগি করেই কাটাতে চান।

এদিকে, সম্প্রতি পুষ্পিতা পপি অভিনীত ‘গার্মেন্টস শ্রমিক জিন্দাবাদ’ ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। মোস্তাফিজুর রহমান বাবু পরিচালিত এই ছবিতে পুষ্পিতা পপির বিপরীতে অভিনয় করেছেন কাজী মারুফ। আর ছবির কাহিনী ও সংলাপ লিখেছেন গুণী নির্মাতা কাজী হায়াৎ।

ছবি প্রসঙ্গে পুষ্পিতা পপি বলেন, ‘শুনেছি, ঈদের পরপরই এটি মুক্তি দেওয়া হবে। নিজেকে আর আমি পর্দায় দেখতে চাই না। বাকি জীবনটা আল্লাহর পথে হাঁটতে চাই।’

পুষ্পিতা পপি বললেন, অভিনয়ে পা রাখার পরও আমি কিন্তু নিয়মিত নামাজ পরতাম, জিকির আসকার করতাম। এটা সিনেমার অনেকেই জানেন। অভিনয়ের থাকাকালীন বারবার মনে হয়েছিল, ক্ষণিকের আনন্দের জন্য আমি সব হারাচ্ছি। আমার মধ্যে সে বুঝটা চলে আসে। ছবির ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর, বেশ কিছু ভালো ও গুণী নির্মাতার সঙ্গে কাজ করার প্রস্তাব পেয়েছি। ভারতের দু’জন জনপ্রিয় নির্মাতাও, তাদের ছবিতে আমাকে কাজ করার প্রস্তাব দেন’

বর্তমানে পুষ্পিতা পপি অন্য একটি পেশার সঙ্গে যুক্ত আছেন। দু’বেলা দু’মুঠো সৎ উপার্জন দিয়ে, বাকি জীবনটা কাটিয়ে দিতে চান এই অভিনেত্রী।

নিউজ গার্ডিয়ান/ এমএ/