ভারতকে হারাতে যা যা দরকার সব করবো: সৌম্য

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে বিশ্বকাপে দুর্দান্ত শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু পরের দুই ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেই রেশ ধরে রাখতে পারেনি। বৃষ্টিবাধায় চতুর্থ ম্যাচে লঙ্কানদের বিপক্ষে করতে হয় পয়েন্ট ভাগাভাগি। উইন্ডিজ ও আফগানদের হারালেও অসাধারণ খেলেও হারতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। তাই দুই ম্যাচ হাতে রেখে জয়ের বিকল্প নেই টাইগারদের সামনে।

তবে এই বিশ্বকাপে নিজের পারফরম্যান্সে খুশি নন বাঁহাতি অপেনার সৌম্য সরকার। পেছনে ফিরে না তাকিয়ে এখন তিনি চান ভারত ও পাকিস্তান বিপক্ষে দুটি ম্যাচে ব্যাটিংয়ে দ্যুতি ছড়াতে। এ মুহূর্তে সৌম্যের মাথায় শুধু এই ভাবনাই।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের স্বপ্ন টিকিয়ে রাখতে হলে ভারতকে হারাতেই হবে। বিরাট কোহলিরা কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও অজেয় নয় বলে মনে করেন সৌম্য সরকার। বরং ভালো খেলে ভারতকে হারানোতেই বেশি মনোযোগ এই টাইগার অলরাউন্ডারের।

এ নিয়ে গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে সৌম্য বলেন, ‘এখনও সেভাবে খেলতে পারিনি। খুশি না। সামনে দুইটা ম্যাচ আছে। ভালো খেলার চেষ্টা করবো।’

ভারতের বিপক্ষে আগের ছোট ইনিংসগুলোতে আরেকটু লম্বা করতে চান সৌম্য। বলেন, ‘৩০-৪০ করে আউট হয়ে যাচ্ছি। যদি আরেকটু সময় নিয়ে ৫০ করতাম, তা হলে আমারও লাভ হতো, টিমেরও। ওটা হয়নি। এখনো দুটা ম্যাচ আছে। চেষ্টা করব সময় নিয়ে হলেও ইনিংসটাকে বড় করার।’

ভারত কোন দিকটায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে? এমন প্রশ্নে সৌম্য বলেন, ‘এগিয়ে আছে এটা চিন্তা করে নামলে আমরা শুরুতেই পিছিয়ে যাব। নামতে হবে এভাবে যে, আমরা জেতার জন্য নামছি। আমরা সেমির রেসে আছি। বড় টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছি। কাউকে এগিয়ে রাখলে আমরা পিছিয়ে যাব। আমরা যেভাবে ক্রিকেট খেলছি, সেভাবে খেলতে পারলেই ওদের (ভারত) সঙ্গে জেতা সম্ভব এবং জিতবো। ভারতকে হারাতে যা যা দরকার সব করবো আমরা।’

নিজের আক্রমণাত্মক ব্যাটিং প্রসঙ্গে সৌম্য বলেন, ‘চিন্তা করি, আমি যদি আরও দ্রুত কিছু রান তুলতে পারি, তা হলে হয়তো আমার পেছনের ব্যাটসম্যানরা আরও ইজি খেলতে পারবে। ইনিংস তারা বড় করতে পারবে। আমাদের টিমের রান বেশি হবে। উইকেট টাফ থাকলেও আমি চেষ্টা করি এমনভাবে খেলতে যেন রানের ফ্লো ঠিক থাকে।’

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের পার্থক্য জানতে চাইলে সৌম্য বলেন, ‘ওরা ইন্ডিয়া, আমরা বাংলাদেশ- এটাই পার্থক্য। মাঠে যেদিন যারা ভালো খেলবে, তারাই জিতবে।’

নিউজ গার্ডিয়ান/ এমএ/