অবরুদ্ধ জাবি উপাচার্য

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে অপসারণের দাবিতে তার বাসভবনে অবরুদ্ধ করেছে আন্দোলনকারী শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।
সোমবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সাতটায় উপাচার্য অপসারণ মঞ্চ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বাসভবন ঘেরাও করেন আন্দোলনকারীরা।
শতাধিক আন্দোলনকারী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। পাশাপাশি উপাচার্যপন্থী প্রায় পঞ্চাশজন শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন।
এছাড়া যেকোন ধরনের সহিংসতা এড়াতে প্রায় ত্রিশজন পুলিশ সদস্য উপাচার্যের বাসভবনের সামনে সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছেন বলে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. আতিক।
এর আগে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে ‘যেকোন সময়’ অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে অবরুদ্ধ করার ঘোষণা দেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর আন্দোলনের মুখপাত্র অধ্যাপক রায়হান রাইন।
অধ্যাপক রায়হান রাইন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘আমরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছি। তিনি অপসারিত না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই অবস্থান চলবে।’
উপাচার্যকে অবরুদ্ধকালে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ছাত্র ফ্রন্ট (মার্ক্সবাদী) বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি মাহাথির মুহাম্মদ বলেন, ‘আমরা অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে পদত্যাগের সময় দিয়েছিলাম। কিন্তু তিনি আমাদের কথায় কর্ণপাত করলেন না। আমরা আজকের অবস্থানে একদিনে আসিনাই। বরং অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম এই অবস্থানে আসতে বাধ্য করেছেন। আপনি অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনের সাথে যা করেছেন তার কিছুই আপনার সাথে করা হয়নি এখনো সময় আছে আপনি ক্ষমতা ছেড়ে চলে যান। আমরা আজকে অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে অবরুদ্ধ করেছি। তিনি এই জাহাঙ্গীরনগর ছেড়ে যাওয়া না পর্যন্ত আমরা তাকে অবরুদ্ধ করে রাখবো। অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম যখন বাসভবন ছাড়বেন তখন তিনি আর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকবেন না।’